Sharing is caring!

করোনার ক্রান্তিলগ্নে দেশে ই-কমার্স ইন্ড্রাস্ট্রিতে অভাবনীয় পরিবর্তন এসেছে। গ্রাহকদের চাহিদা মেটাতে দেশে যেমন প্রতিনিয়ত নতুন নতুন অনলাইন মার্কেটপ্লেসের সৃষ্টি হচ্ছে, তেমনই প্রতিদিনই শুনতে হচ্ছে নানা প্রতারণার খবর। এই সমস্যা দূরীকরণে গ্রাহক এবং সেলারদের সেরা সেতুবন্ধন তৈরির প্রত্যয় নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ইগার্ডশপ। এই বছরের ৮ই জুলাই ই-কমার্স সেক্টরের বেশকিছু সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ইগার্ডশপের পথচলা শুরু হয়। সমগ্র ঢাকা শহরে ২৪ ঘন্টায় ফ্রি ডেলিভারি, শতভাগ মানসম্মত পণ্য গ্রাহকের কাছে পৌছে দেওয়ার নিশ্চয়তা এসব দারুণ দারুণ অফারের মাধ্যমে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই গ্রাহকদের কাছে বেশ ভালো গ্রহনযোগ্যতা পেয়ে যায়।

তাছাড়া সেলারদের অনলাইনে ব্যবসা পরিচালনায় উৎসাহিত করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ যেমনঃ কোনো কমিশন প্রদান ছাড়াই ইগার্ড শপে ব্যবসা করার সুযোগ, ডেলিভারি সহায়তা, সর্বনিম্ন ৫০ টাকা একাউন্টে জমা হলেই টাকা উত্তোলনের মতো বিষয়গুলো সেলারদের ইগার্ডশপের প্রতি আকৃষ্ট করে। ইগার্ড শপের কার্যক্রম এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাওয়া হলে এই প্রতিষ্ঠানের চিফ অপারেটিং অফিসার, শুভ তালুকদার, বলেনঃ “আমাদের দেশে বর্তমানে প্রায় ১০ হাজারের বেশি ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি রয়েছে৷ চারপাশ থেকে প্রতারণার খবর যখন শুনি খুব খারাপ লাগে। আমরা সবসময় গ্রাহকদের সেবার কথা চিন্তা করি। বর্তমানে সমগ্র ঢাকা শহরে আমরা ২৪ ঘন্টায় ফ্রি ডেলিভারি দিতে সক্ষম হয়েছি। কোনো কাস্টমার যেন পণ্য পেয়ে হতাশ না হয়, সেকারণে আমরা প্যাকেজিং এর পূর্বে পণ্যের কোয়ালিটি চেক করে নেই।

আমাদের স্বপ্ন, বাংলাদেশের প্রতিটি প্রান্তে আমাদের সেরা সেবাটাই পৌছে দিব।” ইগার্ড শপ কে নিয়ে অদূর ভবিষ্যতে অনেক দূরে যেতে চান প্রতিষ্ঠাতা এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার, আবদুল্লাহ আল তানভীর। তিনি বলেন, “সৎ ও নিষ্ঠার সাথে ব্যবসা করাই আমার অনুপ্রেরণা। আমি চাই আমার গ্রাহকরা সাধ্যের মধ্যে তার ক্রয়কৃত পণ্য নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে হাতে পেয়ে যাক। বেশী পরিমাণে লভ্যাংশ অর্জন নয়, গ্রাহকদের সেরা সেবা দিয়ে ভালোবাসা পাওয়াই আমার প্রতিষ্ঠানের মূল লক্ষ্য।” প্রতিষ্ঠানটির সাথে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ইগার্ড শপের সাথে কাজ করাটা বেশ উপভোগ্য মনে করেন। সূচনালগ্ন থেকে ইগার্ড শপের সাথে কাজ করে আসা যোভোটিমের প্রতিষ্ঠাতা মাহামুদ হাছান বলেন, ” শুরু থেকে ইগার্ড শপের বিভিন্ন টেকনিক্যাল সাপোর্ট দিয়ে আসছি এবং তাদের সাথে কাজ করাটা সত্যিই আনন্দের।

আমরা আশা করি, ইগার্ডশপ একদিন দেশের সেরা অনলাইন মার্কেটপ্লেস হিসেবে নিজেদের একটা ভালো অবস্থান সুস্পষ্ট করবে । ইগার্ডশপের সঙ্গে আছি, থাকবো। আপনারাও এই ক্রমবর্ধমান প্রতিষ্ঠানটিকে সাপোর্ট দিয়ে পাশে থাকবেন এটাই আশা করি।” ইগার্ড শপের কার্যক্রম, ভবিষ্যতে পরিকল্পনা এবং ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে সুদূরপ্রসারি চিন্তাভাবনা সত্যিই প্রশংশনীয়। নানা বেড়াজাল পেরিয়ে তাদের অঙ্গিকারগুলো বাস্তবায়ন করাটাই হবে এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

আশা করি, ইগার্ড শপের মাধ্যমে অনলাইন মার্কেটপ্লেসের প্রতি ক্রেতা-বিক্রেতার একটি নতুন সম্ভাবনাময় যাত্রা শুরু হবে এবং ই-কমার্স এর প্রতি মানুষের আস্থা অনেকাংশে বৃদ্ধি পাবে।

Sharing is caring!

https://i2.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2020/09/Untitled-design-12.jpg?fit=1024%2C576&ssl=1https://i2.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2020/09/Untitled-design-12.jpg?resize=150%2C150&ssl=1culiveআইটিইগার্ড শপ ই-কর্মাসকরোনার ক্রান্তিলগ্নে দেশে ই-কমার্স ইন্ড্রাস্ট্রিতে অভাবনীয় পরিবর্তন এসেছে। গ্রাহকদের চাহিদা মেটাতে দেশে যেমন প্রতিনিয়ত নতুন নতুন অনলাইন মার্কেটপ্লেসের সৃষ্টি হচ্ছে, তেমনই প্রতিদিনই শুনতে হচ্ছে নানা প্রতারণার খবর। এই সমস্যা দূরীকরণে গ্রাহক এবং সেলারদের সেরা সেতুবন্ধন তৈরির প্রত্যয় নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ইগার্ডশপ। এই বছরের ৮ই জুলাই ই-কমার্স সেক্টরের বেশকিছু...#1 News portal of Chittagong University