Sharing is caring!

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) নিয়মিত সমাবর্তন করার পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট অধিবেশনে সিনেট সদস্য ও উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুর রহমানের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়।

লিখিত প্রশ্নে প্রফেসর মাহবুব প্রশাসনের কাছে জানতে চান, বিশ্ববিদ্যালয়ের গ্র্যাজুয়েটদের একটি স্বপ্ন থাকে সমাবর্তনের মাধ্যমে সার্টিফিকেট গ্রহণ করা। কিন্তু চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়মিত সমাবর্তন হচ্ছে না। সমাবর্তন নিয়মিত করার কোন পরিকল্পনা আছে কি?

এই প্রশ্নের উত্তরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়, এই বিষয়ে উপাচার্য মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে। কোভিড-১৯ পরবর্তী সময়ে নিয়মিত সমাবর্তন করার পরিকল্পনা আছে।

এর আগে গত ২৯ জানুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেছিলেন চলতি বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের পঞ্চম সমাবর্তন আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে।

২০১৬ সালের ৩১ জানুয়ারি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চতুর্থ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসে সর্ববৃহৎ এ সমাবর্তনে অংশ নেন ৭ হাজার ১৯৪ জন গ্র্যাজুয়েট। চ্যান্সেলর পদক পান ৯ জন শিক্ষার্থী। এ ছাড়া ২৫ জন পিএইচডি ও ১৩ জন গবেষককে এমফিল ডিগ্রি দেওয়া হয়।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয় ১৯৯৪ সালে। দ্বিতীয় সমাবর্তনটি হয় ১৯৯৯ সালে। তৃতীয় সমাবর্তনটি হয় ২০০৮ সালের নভেম্বরে।

Sharing is caring!

https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2020/09/cu.jpg?fit=800%2C481&ssl=1?v=1600100490https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2020/09/cu.jpg?resize=150%2C150&ssl=1?v=1600100490culiveবিনোদনচবিকরোনাভাইরাস পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) নিয়মিত সমাবর্তন করার পরিকল্পনা আছে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। রোববার (১৩ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট অধিবেশনে সিনেট সদস্য ও উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. মো. মাহবুবুর রহমানের এক লিখিত প্রশ্নের জবাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে একথা জানানো হয়। লিখিত প্রশ্নে প্রফেসর মাহবুব প্রশাসনের কাছে জানতে চান,...#1 News portal of Chittagong University