Sharing is caring!

কিছুটা বেশীদিন বাঁচতে কে না চায়? পৃথিবীর প্রত্যেকটি মানুষ চায় দীর্ঘজীবী হতে।

একা থাকই কি তবে সুখের চাবিকাঠি। আর সেই সঙ্গে বীজমন্ত্র দীর্ঘায়ুরও। একা থাকুন! একা থাকুন! এই অমিও বাণী অনেকে শুনলেও মেনে আর কজন চলতে পারেন।

সঙ্গির জন্য অপেক্ষা নয় উপেক্ষা করেই জীবনযাপন করতে পারে আর কজন। তবে করতে পারলে লাভটা কি? সেটা একেবারে স্বচক্ষে দেখিয়ে দিলেন নিউইয়র্কের ব্রনস শহরের বাসিন্দা লুইস সিগনেরো। চলতি বছরে ১০৭ বছর বয়সে পা দিলেন তিনি।

তার এই সুদীর্ঘ জীবনের রহস্য কি? তার উত্তর দিতে গিয়ে বৃদ্ধর দাবি যে একা থাকা এবং অবিবাহিত থাকার জন্যই তিনি এতদিন বেঁচে আছেন।

তার মতে বিয়ে করে আলাদাভাবে জীবনযাপনে কোনোপ্রকার সুবিধা পাওয়া যায়না। বৃদ্ধর দিদিও সেঞ্চুরি ক্রস করে প্রায় ১০২ এর দিকে।

১০৭ তম জন্মদিন ধুমধুম করে পালন করেন বৃদ্ধ লুইস। কেকে কাটা থেকে অতিথি অ্যাপায়ন সবই ছিল। প্রায় একশো লোককে জন্মদিনে নিমন্ত্রণ করে খাওয়ান তিনি।

Sharing is caring!

culiveমজার তথ্যকিছুটা বেশীদিন বাঁচতে কে না চায়? পৃথিবীর প্রত্যেকটি মানুষ চায় দীর্ঘজীবী হতে। একা থাকই কি তবে সুখের চাবিকাঠি। আর সেই সঙ্গে বীজমন্ত্র দীর্ঘায়ুরও। একা থাকুন! একা থাকুন! এই অমিও বাণী অনেকে শুনলেও মেনে আর কজন চলতে পারেন। সঙ্গির জন্য অপেক্ষা নয় উপেক্ষা করেই জীবনযাপন করতে পারে আর কজন। তবে করতে পারলে...#1 News portal of Chittagong University