Sharing is caring!

বিচারের নামে মামলার দীর্ঘসূএিতা ও বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারনে অপরাধ সংগঠনে বাড়ছে ৷ খুন ও অপহরনের মতো দুটি মামলার বাদী হিসেবে দীঘদিন ধরে কোর্টে আমার যাতায়ত৷ অভিজ্ঞতা থেকে বলা যায় প্রায় অধিকাংশ ফৌজধারী মামলায় আদালত থেকে খালাস পেয়ে যাচ্ছে আসামীরা৷ মাদ্রাসা ছাএী নুসরাতকে যৌন নিপিড়নকারী ও জ্বলসে হত্যাকারী সোনাগাজী মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল, মুক্তিপনের জন্য আট বছরের শিশুকে গলা ও হাত কেটে হত্যা করা ডেমরার ইমামও একদিন হয়তো অব্যাহতি পেয়ে যাবে৷

খুনী ও ধর্ষকরা অপরাধ করে উচ্চ আদালত থেকে জামীনে বের হয়ে এলাকায় যেয়ে স্বাভাবিক জীবন যাপন করছে৷ আর ভিকটিম পরিবারকে জায়গা -জমি সহায় সম্বল বিক্রি করে বছরের বছর কোর্টে মামলা চালিয়ে নিঃস্ব হতে হচ্ছে৷ আইনের ফাঁক দিয়ে বেড়িয়ে যাচ্ছে খূনির, ধর্ষক, অপহরনকারী৷ ৷ অপরাধ সংগঠন করে পার পেয়ে যাওয়ায় অপরাধীরা বেপরোয়া হয়ে একই অপরাধের পুনরাবৃত্তি ঘটাচ্ছে বলে আমি মনে করি ৷এভাবে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে, চলছে ৷

যেই হারে খুন,ধর্ষণ, অপহরন বাড়ছে তাতে এভাবে চলতে দেওয়া যায় না৷ গুরুতর ও ভয়ংকর অপরাধে শাস্তির বিদ্যমান আইন সংশোধন করে আরো কঠোর করতে হবে৷ এক্ষেএে আমার মতামত:
#এসব ভয়ংকর অপরাধের মামলা দ্রুত সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তির বিধান করা৷

মামলা নিস্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত অভিযুক্তকে হাইকোর্টে জামিন দেওয়ার বিধান সীমিত করা৷

#ভিকটিম পরিবারকে সরকারীভাবে আইনী সহায়তা প্রদান করা৷

মামলার অন্যান্য স্বাক্ষী বাদী কোর্টে হাজির করতে পারলেও আই.ও( তদন্তকারী কর্মকর্তা) এবং এম.ও ( মেডিকেল অফিসার) বা ময়না তদন্ত রির্পোট দাতাকে কোর্টে হাজির করা বাদীর সম্ভব হয় না৷ কারন কোর্ট থেকে যে সমন ইস্যু হয় তা আসামীপক্ষ গোপন করে বা পাঠালেও তাদের পুরনো ঠিকানায় পড়ে থাকে৷ তাই কোর্টের পিপি ফোনে যোগাযোগের মাধ্যমে তাদের বর্তমান ঠিকানায় সমন পাঠিয়ে সাক্ষ্য প্রদানে হাজির করানো নিশ্চিত করা৷ # বাদী ও স্বাক্ষীকে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেওয়া ৷

মামলা চালানোর জন্য বাদীকে বিনা সুদে লোন দেওয়া৷ সহ আইনকে যতটুকু কঠোর করা যায় তা করা৷

তাতেও পরিস্থিতির উন্নতি না হলে ক্ষেত্র বিশেষে ক্রসপায়ার দেওয়া৷

অন্যথায় খুন, অপহরন ও ধর্ষনের মতো ভয়ংকর অপরাধ এভাবে ঘটতেই থাকবে৷

Sharing is caring!

https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2019/04/নুসরাতকে-যৌন-নিপিড়নকারী.jpg?fit=312%2C162&ssl=1https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2019/04/নুসরাতকে-যৌন-নিপিড়নকারী.jpg?resize=150%2C150&ssl=1culiveক্রাইম এন্ড "ল"নুসরাতকে,যৌন নিপিড়নকারীবিচারের নামে মামলার দীর্ঘসূএিতা ও বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারনে অপরাধ সংগঠনে বাড়ছে ৷ খুন ও ...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University