Sharing is caring!

রাজ্যে অধ্যাপকদের জন্য সুখবর। আবেদনের বয়সের সময়সীমা বেড়ে ৩৭ থেকে হল ৪০। এতোদিন পর্যন্ত জেনারেল ক্যটাগরির আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে ৩৭ বছর বয়স ছিল চাকরীর ক্ষেত্রে আবেদন করার শেষ সময়সীমা।

যা নিয়ে সমস্যায় পড়তে হত তাঁদের। কিন্তু এবার থেকে বয়স সীমা ৪০ বছর হয়ে যাওয়ায় অনেকটাই সুবিধা পাবেন রাজ্যের স্থায়ী অধ্যাপক হিসেবে আবেদনকারীরা। বৃহস্পতিবার রাজ্য বিধানসভায় পাশ হয়েছে এমনই আইন।

রাজ্যে অধ্যাপকদের ক্ষেত্রে স্থায়ী পদে আবেদনের নিয়ম কোন ব্যক্তিকে নেট, সেট কিংবা পিএইচডি-এর অধিকারী হতে হবে। তবেই তিনি কলেজ সার্ভিস কমিশনের ক্ষেত্রে আবেদনকারী হিসেবে গন্য হবেন। জেনারেল ক্যটাগরির আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে সেই বয়সটা ছিল ৩৭। যা বৃহস্পতিবার থেকে হয়ে দাঁড়াল ৪০ – এ।

এসসি, এসটি কিংবা ওবিসি-দের ক্ষেত্রে আবেদনের সেই বয়স সীমা ছিল ৪২। ফলে জেনারেল ক্যটাগরির আবেদনকারীদের তুলনায় অনেকাংশেই বেশী সুবিধে পেতেন এই সমস্ত আবেদনকারীরা।

নেট, সেট কিংবা পিএইচডি-এর মত উচ্চশিক্ষার বিষয়গুলি পার করে আসতে অনেক বয়স বেড়ে যায় জেনারেল ক্যটাগরির আবেদনকারীদের। কারণ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে তাঁদের জন্য আসন সংখ্যা খুবই কম।

তাই সমস্ত ধাপ পার করে অধ্যাপক হিসেবে নিজেকে আবেদনকারী করে তুলতে সমস্যায় পড়তে হত তাঁদের। কিন্তু এবার বেড়ে গেল বয়স সীমা। অনেকটাই স্বস্তির মুখে রাজ্যের জেনারেল ক্যটাগরির অধ্যাপক আবেদনকারীরা।

Sharing is caring!

https://i2.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/job.jpg?fit=287%2C176&ssl=1https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/job.jpg?resize=150%2C150&ssl=1culiveএক্সক্লুসিভজবসরাজ্যে অধ্যাপকদের জন্য সুখবর। আবেদনের বয়সের সময়সীমা বেড়ে ৩৭ থেকে হল ৪০। এতোদিন পর্যন্ত জেনারেল ক্যটাগরির আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে ৩৭ বছর বয়স ছিল চাকরীর ক্ষেত্রে আবেদন করার শেষ সময়সীমা। যা নিয়ে সমস্যায় পড়তে হত তাঁদের। কিন্তু এবার থেকে বয়স সীমা ৪০ বছর হয়ে যাওয়ায় অনেকটাই সুবিধা পাবেন রাজ্যের স্থায়ী অধ্যাপক হিসেবে...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University