“রৌমারী উপজেলায় আমি প্রথম মেয়ে যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের যোগ্যতা লাভ করি ”

সুবর্ণজয়ন্তীতে ২২ তম ব্যাচের আনজুমান আরা বেগম
সুবর্ণজয়ন্তীতে ২২ তম ব্যাচের আনজুমান আরা বেগম

সুবর্নজয়ন্তীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে এমনিভাবে তখনকার দিনের অনেক কথাই   Culive24.com কে বললেন  আনজুমান আরা বেগম (বাংলা,২২ তম)।

তিনি বর্তমানে বাংলা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে আছেন রৌমারী ডিগ্রী কলেজে।

কেমন লাগছে সুবর্ণজয়ন্তীতে এসে?
><অনেক দূর থেকে( কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী) এসেছি।। আমি আনন্দে আত্মহারা। পুরোনো বন্দুদের সাথে মিলিত হতে পেরে, স্মৃতিময় ক্যাম্পাসে ঘুরে সেই হারানো দিন গুলোকে যেন ফিরে পেলাম।><

ক্যম্পাসের কোন মূহুর্তগুলো এখনো মনে পড়ছে?
><ঝুপড়ি তে বসে চা আর বন্ধুদের সাথে আড্ডা।।অধ্যাপক ময়ূখ চৌধুরী ফ্যাকাল্টি এর করিডোর এ আমার বন্ধু সহপাঠী ভেবে স্যার এর কাছে সিগারেট এর আগুন চেয়েছিল।।স্যার সহজেই দিয়েছিলেন।।অতঃপর ক্লাসে বসে স্যার আর ছাত্রের চোখা চোখি হতেই স্যার বলে উঠলেন — আপনারা বাপের টাকায় সিগারেট খাবেন আর আমি একটু আগুন দিয়ে সহযোগিতা করতে পারব না।।><

আপনাদের শাটল ট্রেনের দিনগুলো কেমন ছিল?
><ট্রেনে যেতে যেতে সহপাঠী এস,আই, টুটুল এর বগী চাপড়িয়ে গান গাওয়া আর তাতে অংশ গ্রহণ করতাম আমরা।><

আপনার প্রিয় শিক্ষক এবং তার কোন কথাটি এখনো আপনার মনে পড়ছে? 
><প্রিয় শিক্ষক অধ্যাপক ময়ূখ চৌধুরী।। তিনি সবসময় বলতেন — “অযোগ্য ব্যক্তি ক্ষমতায় গেলে কষ্ট পাই।”><

আপনাদের সময় নারীরা শিক্ষার তেমন সুযোগ পায়নি,তবুও আপনি এতদূর থেকে এসেছেন পড়াশুনা করতে, এর পিছনে কার অবদান যদি এ সম্পর্কে কিছু বলতেন?
><অনেক পিছুটান থাকা সত্ত্বেও আমার বাবা চাইতেন আমি উচ্চ শিক্ষা লাভ করি।। তাই রৌমারী উপজেলায় আমি প্রথম মেয়ে যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যয়ন এর যোগ্যতা লাভ করি।।আমার দুলাভাই চট্টগ্রাম সেনানিবাস এ চাকরী করতেন বলেই বুবু এর সাথে থাকার সুযোগ ছিল><

বর্তমান সময়ে নারী শিক্ষা কেমন পর্যায়ে আছে?
><নারীরা শিক্ষায় এখন অনেক এগিয়ে।।বর্তমান সরকার নারী শিক্ষায় অনেক অবদান রাখছেন।আমার মতে, আমার মনে হয় নারীদের উপবৃত্তি দিয়ে এবং সরকারি চাকরীতে ৬০% সুবিধা দিয়ে নারীকে যোগ্যতম করে গড়ে তোলা হচ্ছে না।তাদের নিজের যোগ্যতা প্রমান করার মত শিক্ষায় উৎসাহী করা দরকার।><

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়কে ভবিষ্যৎএ কেমন দেখতে চান? 
><আমার বিশ্বাস একদিন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক মানের বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিনত হবে ><

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ কিছু সময় দেওয়ার জন্যে।

মেহেদী হাসান,চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় 

MeHedi HasAnউদ্দীপনাএক্সক্লুসিভক্যাম্পাসক্যারিয়ার২২তম ব্যাচ,চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শাটল,বাংলা বিভাগ,সুবর্ণ জয়ন্তী'রৌমারী উপজেলায় আমি প্রথম মেয়ে যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নের যোগ্যতা লাভ করি ' সুবর্নজয়ন্তীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে এমনিভাবে তখনকার দিনের অনেক কথাই   Culive24.com কে বললেন  আনজুমান আরা বেগম (বাংলা,২২ তম)। তিনি বর্তমানে বাংলা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে আছেন রৌমারী ডিগ্রী কলেজে। কেমন লাগছে সুবর্ণজয়ন্তীতে এসে? ><অনেক দূর থেকে( কুড়িগ্রাম জেলার রৌমারী) এসেছি।। আমি...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University