একজন তপন ভাই আর একজন তরুন ভাই ।

দুই জনই ৩০ তম বিসিএস ক্যাডার । এবং কি প্রথমবারেই বিসিএস ক্যাডার হন দুই জনই।
একজন প্রশাসনে আর একজন কাস্টমে।

দুই জনই ২০০৪-০৫ শিক্ষাবর্ষের সমাজতত্ত্ব বিভাগের ছাত্র।

একজনের রেজাল্ট ৩.৬৩ আর একজনের ৩.৫৪। তরুন ভাই বিভাগে দ্বিতীয় হয়েছিলেন

স্যার বা বন্ধুরা প্রথম প্রথম ওনাদের দুই জনকে চিনতে সমস্যা হত।

তরুন ভাই নিজ বিভাগের নিজ বর্ষের বান্ধবীর সাথে প্রেম তারপর বিয়ে ।

ওনাদের পড়ালেখার ধরন ছিল আলাদা। সময়কে কাজে লাগিয়ে পড়তেন।

সকালে ফযরের নামাজ পড়ে পড়াশোনা শুরু করতেন এবং রাত ঠিক ১২টা পর্যন্ত পড়তেন। ১২ টার পর একটুর জন্যও জেগে থাকতেন না কারন সকালে উঠে আবার পড়তে হবে।

এর একটা উদাহরন হল তখন ৩০তম বিসিএস পরীক্ষার সময় ২০১০ সালে ফুটবল বিশ্বকাপ চলছিল । তপন ভাই ব্রাজিলের সাপোর্টার আর তরুন ভাই আর্জেন্টিনার সাপোর্টার ছিলেন । কিন্তু খেলা শুরু হত রাত ২টায় তবুও নিজ দলের খেলা দেখতেন না এবং কি যেদিন ব্রাজিল আর আর্জেনন্টিনা হেরেছিল কোয়ার্টাল ফাইনালে তখনও খেলা দেখেন নাই। কারন সকালে উঠতে দেরী হবে তাই।

মাস্টার্স পরীক্ষা দেওয়া আগেই উনারা বিসিএস এর লিখিত পরীক্ষা দিয়েছেন।

সময়কে কাজে লাগিয়ে ছিলেন বলেই প্রথমবারেই বিসিএস ক্যাডার হয়ে যান।

টার্গেট ঠিক রাখুন নিশ্চয়ই সফলতা আসবেই। সময় কারো জন্য অপেক্ষা করে না সুতরাং সময় থাকতে সময়ের মূল্য দিন।

বর্তমানে তপন ভাই আছেন সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে এবং তরুন ভাই আছেন ফেণী কাস্টম অফিসে।

আজ তারাই আবার এই ক্যাম্পাসে এসেছেন সমাবর্তনে।

শুভ কামনা দুই ভাইয়ার জন্য।

লেখা- মাইনুল ইসলাম শিমুল।

culiveUncategorizedইন্টারভিউউদ্দীপনাক্যাম্পাসজবসতরুণ স্টাইলব্যাক্তিত্বমিডিয়াস্টাডিজমজ,বিসিএস ক্যাডারএকজন তপন ভাই আর একজন তরুন ভাই । দুই জনই ৩০ তম বিসিএস ক্যাডার । এবং কি প্রথমবারেই বিসিএস ক্যাডার হন দুই জনই। একজন প্রশাসনে আর একজন কাস্টমে। দুই জনই ২০০৪-০৫ শিক্ষাবর্ষের সমাজতত্ত্ব বিভাগের ছাত্র। একজনের রেজাল্ট ৩.৬৩ আর একজনের ৩.৫৪। তরুন ভাই বিভাগে দ্বিতীয় হয়েছিলেন । স্যার বা বন্ধুরা প্রথম প্রথম ওনাদের দুই জনকে...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University