fb_img_1474974417277আমি বুঝিনা সে ক্যান অষ্টপ্রহরে
আমারে নিয়া এতো স্বপন দেখে
সারা দিন রাইত এতো কি ভাবে
আমি কি করি না করি এইসব নিয়া
সে ক্যান রাইতের ঘুম হারাম করে
রাইত হৈলেই সে ক্যান আমারে জিগায়
‘বুকের ভেতর রাইবানি আজীবন?’
ক্যান সে বারবার কয়,আমি খালীই তার
আমি মনে মনে কই
তোরে আমি রাখছি পরানের ভিতর
বৌ কৈরা ,আমারে নিয়া স্বপন দেখিস না
যারে দেহন যায় ,যারে ছোঁওন যায়
যারে হাত বাড়ালেই পাওন যায়
তারে নিয়া স্বপন দেখন লাগেনা
দুয়া কর যেন তোরে পরানের ভিতর থেইকা
ঘরের ভিতর আনবার পারি
হ,আমি খালী তোর ,খালি তোর
আমি খালিই তোর সোনাবর..

আমি বুঝিনা
আমারে সে ক্যান আগলায় রাখে
বুকের ভেতর মাথা গুজতে কয়
চুল খুইলা কয় ‘গেরান পাও নি সোয়ামী?’
আমি চুলে নাক গুজি আর দীর্ঘশ্বাস ছাড়ি
ঐখানে পাই অপেক্ষার গেরান
আমি তার হাসিমুখের উপরে কইবার পারিনা
বৌ,অস্থির হইসনা,তোর দেহে দেহিস
একদিন যোগ হইবো আমার ঘামের গেরান ‘

আমি বুঝিনা আমারে ক্যান কয়
বুকের ভেতর স্বর্গ,সে আমার হুরপরী
আমারে বানায় তার দেব,সে নর্তকী,
অষ্টপ্রহরে সে আমার পুজা করে
চুমা দিতে দিতে কয়
মন জয় করছি দেব?’
উত্তর শুনবার লাইগা চোখে কাজল দেয়
বান্ধা চুল হেচকা টানে খুইলা দেয়
খোলা চুল টাইনা দেয় ঘাড়ের পাশে
আরেক পাশের ঘাড় কৈরা দেয় উদাম
আমারে তার ধবধবা ফর্সা ঘাড় দেখাইয়া
চোখে মাতাল চাহনি নিয়া কয়
মন জয় হৈছে,দেব?”

আমার বুকের পশম ছটফট করে
হাতের আঙ্গুল কাঁপে
পুরুষালী ঠোঁট তিরতির করে
আমি কিছু কইবার পারিনা
তার শুরু হয় ঘন নিঃশ্বাস
সবকিছু উলটপালট হইয়া যায়
য্যান ঘরের ভিতর সুনামী আইছে
অথচ সে সুনামী ঝড় তোলে খালী আমগো দেহে
পুরা ঘর ঠিক থাকে খালী আমরা বিধ্বস্ত হই
সে তবু আমারে জিগায়
মন জয় হৈছে দেব
লাগবো প্রসাধ ,দিমু পূজা?’

অথচ সে ক্যান বোঝেনা
সে ঘুমাইলে আমি তার নাকে হাত দেই
ডরে আমার পরান কাঁপে
এই বুঝি নিঃশ্বাস গেলো আলতাপরীর,
বুকে মাথা রাখি,বুঝবার চেষ্টা করি
সামনে কে ঘুমায়,পরী না দেবী
এতো অপার্থিব ক্যান?
ঘুম ভাইংগা আমারে তার বুকের উপর দেখলে
কানতে কানতে দেয় চুমার পূজা
সে আমারে পূজা করে ক্যান?
সে ক্যান বোঝে না
দেবী কোনদিন পূজা করেনা ..

আমি বুঝিনা সে ক্যান পরীক্ষার রাইতে কয়
ভালোবাসি,বাসো?”
রাগ কৈরা ফোন রাইখা দিলে
ফোন দিয়া কয় “চুমা দাও,খিদা লাগসে”
ভাত খাইতে বইয়া ফোন দেয়
আর কয় “হা করছি,খাওয়াই দাও”
দিনরাত আমার নাম জপে তসবিহর মতো
হুটহাট জিগায় “তোমারে মিছাই ,তুমি মিছা’ও?”
চুপ কৈরা থাকলেও দোষ
ভাবে চইলা গেছি,নতুন নারী আইছে
প্রেম মইরা গেছে কইয়া আহাজারী করে
অথচ সে ক্যান বোঝেনা
নিঃশ্বাসের মতই তারে আমি প্রতিমুহুর্তে মিছাই
এই দুনিয়াতে তার মত কে আছে
যার পাশ ফিরা ঘুমাইলেও জড়ায় ধরে
যারে নিয়া উপাস থাকলে ,ঠোঁট খোঁজে
কয় ‘আহো ,ঠোঁটখান ভিজাই দি’

আমি ক্যান যামু এই বৌ ছাইড়া
আমি ক্যামনে বাচুম তারে ছাড়া
পুরুষ হইলেই কি নিষ্টুর হইতে হয়?
বৌ গেলেই নতুন বৌ লাগে?
আমি না হয় পুরুষ হইলাম না
তবুও সে য্যান না কয়
আমি যামুগা পরনারির লগে
সে ক্যান বুঝে না,ক্যান বোঝেনা
তারে ভালোবাসি চৈত মাসের কুত্তার মত
আমার চৈত মাস আর শেষ হয়না
সে মইরা গেলে আমার চামড়ায় বানামু
তার লাইগা সাদা কাফন
তবুও তারে আকড়াইয়া বাঁচবার চাই
তহন না হয় আমিই কমু
মন জয় হৈছে দেবী
প্রসাধ দিমু?লাগবো পুজা?
আছে চোখের মনি
এখনো টাটকা ।
পা’ও দাও ,নুপূর লাগাই
বুকের হাড় দিয়া ।
কপাল দাও ,সিদুর লাগাই
দেহের রক্ত দিয়া ।
কোন দেবী পাইছে প্রসাধ
এমন আদর কৈরা?”

কাব্যগ্রন্থঃ বত্রিশ ইঞ্চি স্বর্গ
কবিতাঃ বুকের হাড়ের নূপুর
হৃদয় ইসমাইল
৪ই এপ্রিল ২০১৪

বাংলাসাহিত্যের অনবদ্য সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হক স্যারে অনুপ্রানিত হয়ে লিখেছিলাম। স্যারের এই দুঃসময়ে তাই খুব সহজেই হয়ে পড়ছি স্মৃতিকাতর।

উতসর্গঃ সৈয়দ শামসুল হক

হৃদয় ইসমাইলUncategorizedআমি বুঝিনা সে ক্যান অষ্টপ্রহরে আমারে নিয়া এতো স্বপন দেখে সারা দিন রাইত এতো কি ভাবে আমি কি করি না করি এইসব নিয়া সে ক্যান রাইতের ঘুম হারাম করে রাইত হৈলেই সে ক্যান আমারে জিগায় 'বুকের ভেতর রাইবানি আজীবন?' ক্যান সে বারবার কয়,আমি খালীই তার আমি মনে মনে কই 'তোরে আমি রাখছি পরানের ভিতর বৌ কৈরা ,আমারে নিয়া...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University