চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্বকরার মত যদি কিছু না থাকে তবুও শাটলকে নিয়ে গর্ব করা যাবে। অত্যন্ত দুঃখের সাথে বলতে হয়, এত গর্বকরার জিনিস অরক্ষিত অবস্থায় পরেথাকে। যার ফলশ্রুতিতে টোকায়রা রাতে মলমূত্র ত্যাগ করে তাদের টয়লেট বানিয়ে ফেলে যার প্রমাণ আমরা যারা শাটলে যাতায়ত করি তারা খুব বিরক্তিকর অনুধাবন করতে পারি। জানতে ইচ্ছাকরে বাংলাদেশ রেলওয়ে চবি কে দান খয়রাত করছে শাটল?
কয়েকদিন আগে আমরা কয়েক জন ১নং রেলগেইট হতে নাজির হাটের ডেমুতে করে শহরে আসছিলাম। টিটি আমাদের কাছথেকে শাটলে না এসে ডেমুতে আসার কারণ জানতে চাইলেন। আমরা বললাম “আপনারা আমাদের ৭/৮বগির যে ট্রেন দেন তাতে আমাদের হয় না আর আজ দিয়েছেন ৪ বগির! আমরা এত গুলি ছাত্রছাত্রী কেমনে যাব এই চার বগি করে?” জবাবে ওনি বলে “দেখ বাবারা আমাদের কিছুকরার নাই আমাদের তোমাদের ভার্সিটি যে পরিমাণ টাকাদেয় আমরা সে পরিমাণ বগি দেই! তোমরা হয়তো টাকা দিয়েদাও ঠিক মত কিন্তু সেই টাকা অনেক সময় ঠিকমত আমাদের কাছে আসে না! তখন আমাদের বাধ্যগত কম বগি দিয়ে ট্রেন পাঠাতে হয়”
প্রশ্ন হচ্ছে প্রতি বছর এত জন ছাত্রছাত্রী ট্রেনের ভাড়া দেয় কারোত রেহাই নাই ভাড়া না দিয়ে সে শহরে থাকুক বা হলে থাকুক এই সব টাকা যায় কই? না কি তা যথেষ্ট না? যারা প্রশাসনে আছেন আপনারা তো আর চাঁদের দেশ থেকে আসেন নি আপনারা তো আমাদের কষ্টের কথা জানা থাকার কথা। নাকি জেনেও চোখ বন্ধকরে আছেন! পারলে সমস্যা সমাধান করার চেষ্টাকরুন তখন আপনাদের আমরা একে একে গিয়ে ধন্যবাদ দিতে পারব না, কিন্তু লাখো ছাত্রছাত্রীর মনের দোয়া আপনাদের ওপর যাবে যেমন যাচ্ছে লাখো কষ্ট।
:
#অত্যন্ত দুঃখের ব্যাপার আমরা এত বছরেও শহরথেকে ক্যাম্পাস পর্যন্ত ডাবল রেল লাইন করতে না পারা, এই ব্যর্থতা শুধু প্রশাসনের নয়, ছাত্র শিক্ষক সবার উপর বর্তায়। আমরা এ ব্যাপারে সরকারে সুদৃষ্টি আকর্ষণ করতে পারিনি!
যে দেশে পদ্মাসেতু সহ এত এত ফ্লাইওভার হচ্ছে এগুলোর থেকে কি এই খরচ বেশী
#কষ্টের কথা কার সাথে শেয়ার করব পরিবারের সাথেই তো করা যায়!
ভুলত্রুটি হলে ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।
ধন্যবাদ
Md Toyub Ali
Department of Management

https://i1.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/পুরোনো-অডিটোরিয়াম.jpg?fit=420%2C280https://i1.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/পুরোনো-অডিটোরিয়াম.jpg?resize=150%2C150culiveক্যাম্পাস সৌন্দর্যচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গর্বকরার মত যদি কিছু না থাকে তবুও শাটলকে নিয়ে গর্ব করা যাবে। অত্যন্ত দুঃখের সাথে বলতে হয়, এত গর্বকরার জিনিস অরক্ষিত অবস্থায় পরেথাকে। যার ফলশ্রুতিতে টোকায়রা রাতে মলমূত্র ত্যাগ করে তাদের টয়লেট বানিয়ে ফেলে যার প্রমাণ আমরা যারা শাটলে যাতায়ত করি তারা খুব বিরক্তিকর...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University