গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানে ১৯ (১), ২৯ (১) ও ২৯ (২) অনুচ্ছেদ সমূহে
চাকুরির ক্ষেত্রে সকল নাগরিকের সমান সুযোগের কথা বলা হয়েছে।

এই কোটা পদ্ধতি সংবিধানের ১৯, ২৮, ২৯ ও ২৯/৩ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।
২৯(৩)এর(ক)-তে আছে, অনগ্রসর জনগোষ্ঠী উপযুক্ত প্রতিনিধিত্ব লাভ করার জন্য তাদের জন্য বিশেষ বিধান থাকবে।
কিন্তু
৫ই মার্চ ২০১৮ সালে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ আবেদনে ভুল রয়েছে এই মর্মে রিট আবেদনটি খারিজ করে দেন।

শুধু রিটের আবেদনে ভুল করেছিল বলেই হাইকোর্ট রিটটি খারিজ করে দেয়।
এবং আদালত বলেছেন এটা সরকারের পলিসি।
সরকার যেভাবে চাই সেভাবেই করতে কোন আইনি বাঁধা নাই।

শেষ কথায় আসি,

এখন প্রশ্ন হলো সংবিধানের ভাষায় অনগ্রসর জনগোষ্ঠী কারা?
প্রতিবন্ধীরা অনগ্রসর, উপজাতি শ্রেণী অনগ্রসর, পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী।

যাদেরকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবিধান অনুযায়ী সংবিধানের ভাষায় বিশেষ সুবিধা দিবেন বলেছেন কিন্তু কোটা সম্পূর্ণ বাতিল।
এর মানে বুঝতে হবে কোটা শব্দের প্রয়োগ না হয়ে সাংবিধানিক ভাষায় বিশেষ সুবিধা শব্দের প্রয়োগের মাধ্যমে অনগ্রসর জনগোষ্ঠীকে বিশেষ সুবিধা দিবেন।

এর পরেও যারা সংবিধান বা হাইকোর্টের রোলের দোহাই দিয়ে আন্দোলন করতে চাই, তারা আসলেই বোকার দল।
এই বোকার দলের সাথে যারা সম্মতি দিয়ে আন্দোলন করবে তারা কোননা কোন রাজনৈতিক দলের কর্মী।

আরেকটি তথ্য দিয়ে রাখি, কোটা বাতিলের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ৬ই মার্চ সরকারের জনপ্রশাণ মন্ত্রনালয়ের এক আদেশে জানানো হয় আপাতত কোটা সংস্কার হচ্ছে না।
তবে আদেশে উল্লেখ করা হয় যদি কোটায় প্রার্থী না পাওয়া যায় সেক্ষেত্রে মেধাতালিকা থেকে শূন্য পদ পূরণ করা হবে।

এখন সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিল হওয়ায় সবার জন্য সমান সুযোগ থাকছে।

শত বাঁধার মাঝেও এমন সাহসী সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আপনাকে ছাত্রজনতার পক্ষ থেকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানাই💜।

মিজান শাইখ
চবির আইন বিভাগের ছাত্র

https://i1.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/কোটা-বাতিল.jpg?fit=303%2C166https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/কোটা-বাতিল.jpg?resize=150%2C150culiveইন্টারভিউইভেন্টক্যারিয়ারকোটা বাতিলগণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানে ১৯ (১), ২৯ (১) ও ২৯ (২) অনুচ্ছেদ সমূহে চাকুরির ক্ষেত্রে সকল নাগরিকের সমান সুযোগের কথা বলা হয়েছে। এই কোটা পদ্ধতি সংবিধানের ১৯, ২৮, ২৯ ও ২৯/৩ অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। ২৯(৩)এর(ক)-তে আছে, অনগ্রসর জনগোষ্ঠী উপযুক্ত প্রতিনিধিত্ব লাভ করার জন্য তাদের জন্য বিশেষ বিধান থাকবে। কিন্তু ৫ই মার্চ ২০১৮ সালে...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University