৭১ দেখিনি, ২০১৮ দেখলাম,
তারুণ্যের শক্তি কি, তা কাল রাতে দেখলাম…..

কাল রাতে সাধারন ছাত্রদের উপর পুলিশের বর্বর হামলার ঘটনা কিভাবে বর্ণনা করব বুঝতে পারছি না,
চাকুরীতে ৪৭ বছর ধরে চলে আসা বৈষম্য মুলক কোটা সংস্কারের দাবীতে সাধারন ছাত্ররা পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী দুপুর ২ টা থেকে ঢা.বি কেন্দ্রীয় লাইব্রীর সামনে থেকে মিছিল নিয়ে শাহাবাগ রাস্তা অবরোধ করে, আমিও একজন সাধারন ছাত্র হিসেবে এই ন্যায্য আন্দোলনে অংশ গ্রহন করি, ছাত্ররা অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছিল, ঢাকার সাথে সমর্থন দিয়ে দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় এর ছাত্ররাও দেশের বিভিন্ন স্হানে অবরোধ করে,, হঠাৎ আনুমানিক রাত ৮ টার দিকে শাহাবাগে শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে ছাত্রদের উপর পুলিশ মুহুর্মুহু টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করে, বাংলাদেশের ইতিহাসে এত টিয়ারগ্যাস, রাবার বুলেট, মারা হয়নি কখনো,পুলিশের টিয়ারগ্যাস গ্যাসে টিকতে না পেরে আমরা হাজার খানেক ছাত্র চারুকলায় আশ্রয় নিই, হাজার হাজার ছাত্র পিছু না হটে পুলিশের মোকাবেলা করে অসীম সাহস নিয়ে,চারুকলায় আটকে পড়া সবাই ২০ মিনিট পর চারুকলা থেকে বের হয়ে আন্দোলনে ছাত্রদের সাথে যোগদান করে এভাবে সারা রাত পুলিশের সাথে ধাওয়া পাল্টা চলে, রাত বাড়ার সাথে পুলিশ আক্রমণের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়..এসময় টিয়ারগ্যাস এর প্রকোপ থেকে বাঁচার জন্য সারা সড়কে ছোট ছোট আগুনের ক্ষেত্র তেরী করে,এসয় পুলিশের অবিরাম টিয়ার,রাবার বুলেট ও গুলি বর্ষনে বহু ছাত্র আহত হয়, আহতদের খুব দ্রুত আন্দোলন কারীরা হাসপাতালে পাঠায়,,, রাত ১২ টার দিকে একজনের মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে আন্দোলন আরো তীব্র হয়,এর মধ্যে বিভিন্ন ছাত্রী হল থেকে প্রধান ফটকের
দরজা ভেঙ্গে ছাত্রীরাও আন্দোলনে যোগ দেয়,বিক্ষোব্দ ছাত্ররা ঢাবি ভিসির বাডীতে হামলা করে ও অবস্হা বেগতিক দেখে ভিসি পেছনের পটক দিয়ে পালিয়ে যায়,,তখন রাত ২ টায় এভাবে সারা রাতা চলে, শীরের অবস্হা খারাপ হলেও সারা রাত আন্দোলন কারীদের পাশেই ছিলাম একটুও ক্লান্ত মনে হয়নি,অনেকে বিভিন্ন ভাবে আন্দোলন বন্ধ করার ষড়যন্ত্র করে,,একটা বিষয় এটি একটি অরাজনৈতিক ও সাধারন ছাত্রদের আন্দোলন বহু ছাত্রলীগ নেতাও এতে অংশ নেয়,,কিন্তু সরকার কিবুঝে জাতীয় এই ভবিষ্যত, মেধাবী দের উপর হামলা করল তা কোন মতেই বোধগম্য নয়, একটা বিষয় হতে পারে অতিমাত্রায় আমলা নির্ভরতা,যারা শীর্ষ আমলা সবাই কোটাধারী,,!! সরকারের উচিত হবে অবিলম্বে হামলা বন্ধ করে সাধারন কোটি ছাত্রেরর যৌক্তিক দাবী মেনে বৈষম্য মুলক কোটা ব্যবস্হার সংস্কার করা।
আর এখনই যদি এই আন্দোলন এর দাবী মেনে না নেয় তবে সরকার সবচেয়ে বড় ভুলটিই করবে,,,

http://culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/2.jpghttp://culive24.com/wp-content/uploads/2018/04/2-150x150.jpgculiveএকাডেমিকক্রাইম এন্ড "ল"bangladesh,movement,quata৭১ দেখিনি, ২০১৮ দেখলাম, তারুণ্যের শক্তি কি, তা কাল রাতে দেখলাম..... কাল রাতে সাধারন ছাত্রদের উপর পুলিশের বর্বর হামলার ঘটনা কিভাবে বর্ণনা করব বুঝতে পারছি না, চাকুরীতে ৪৭ বছর ধরে চলে আসা বৈষম্য মুলক কোটা সংস্কারের দাবীতে সাধারন ছাত্ররা পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী দুপুর ২ টা থেকে ঢা.বি কেন্দ্রীয় লাইব্রীর সামনে থেকে...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University