কয়েকদিন অাগে আড়াইটার ট্রেনে শহরে আসবো বলে ক্যাম্পাসে অপেক্ষা করছিলাম। দেখলাম কয়েকজন মিলে শাটলে, দোকানে লিফলেট লাগাচ্ছে।আহবান জানানো হয়েছে অর্ধেক পথ বসে, অর্ধেক পথ দাঁড়িয়ে যাওয়ার।
কনসেপ্ট খারাপ না। সাধারনত বন্ধুদের সাথে যাওয়ার ক্ষেত্রে সিট কম পেলে এমন করি।কিন্তু লিফলেটের কথাগুলো নিজের বিবেককে আরো নাড়া দিলো। ক্যাম্পাস জীবনের গত সাড়ে চার বছরের হিসাব নিকাশ নিয়ে বসলাম। ঠিক যে কাজটা নিজেদের বন্ধুদের সাথে করি, সারাক্ষণ সামনে দাঁড়িয়ে থাকার পরেও ভার্সিটির আরেক ভাইয়ের ক্ষেত্রে তা ভাবনাতেও আসে না।নিজের ভ্রাতৃত্ববোধকে প্রশ্ন করতে হয়।
তো যেই ভাবনা,সেই কাজ।ক্যান্টনমেন্ট স্টেশন আসতেই সামনে দাঁড়ানো ভাইকে সিটটা ছেড়ে দিলাম।বাকি পথ দাঁড়িয়ে এসেছি। মনে মনে খুব ভালো লাগছিলো। বাসায় এসে জেনেটিক্সের ছোট ভাই সারওয়ারকে বললাম আজকের ঘটনাটা।সে বলল,ভাই আমি তো সবসময়ই এমন করি।এখন সবাই এমন প্রাকটিস করলে ভালো হবে।ওর উত্তর ছিলো আমার জন্য আরেক শিক্ষা।
ওর জবাব ছিলো,যারা ট্রেনে সিট পাই,তখন নিজেকে ভিআইপি ভিআইপি মনে করি।সামনের একঘন্টা একজন দাঁড়িয়ে থাকবে অপরিচিত হবার কারনে আর আমরা বসে বসে আড্ডা দিবো।আমার মত সেও চবিয়ান এতটুকুও কি অন্তত তাকে বসতে দেয়ার জন্য যথেষ্ট না?
আমরা যদি অর্ধেক পথ স্যাক্রিফাইজ করি,অন্যদিন আমি যখন সিট পাবো না,তখন আমাকেও আরেকজন সিট দিবে।আর তখন সিট ধরার জন্য অস্থির তাড়াহুড়ো থাকবে না।সবাই ভাববে অর্ধেক পথ তো আমাকে স্যক্রিফাইজ করতে হবে।ভ্রাতৃত্ববোধ বাড়বে।অামি অবশ্য এমন অনেক ছাত্র দেখেছি,ট্রেন ছাড়ার পরে তার সামনে কোন মেয়ে দাঁড়িয়ে থাকলে সিট ছেড়ে দেয়।বলে,আমার সামনে আমার বোন দাঁড়িয়ে থাকবে,তা মেনে নিতে পারি না।এসব চবিয়ানদের স্যালুট।
আমি নিশ্চিত লিফলেট দেখার পরে ট্রেনে নূন্যতম ৫০ জন শিক্ষার্থী সিট ছেড়ে দিয়েছে অর্ধেক পথে। একটা সময় আসবে একজন আরেকজনকে সম্মান করে বলবে,ভাই আপনি আগে বসেন,আমি পরেরটুকু বসবো। তখন যে সিট দিবে না,সে লজ্জা পাবে।ভাববে,সবাই কি আমাকে সেলফিশ মনে করছে?
পরিবর্তন আসুক,পরিবর্তন হবে।আমরা আমরাই তো।
তবে চবিয়ানদের চক্ষুলজ্জা অনেক বেশী।ট্রেনের ভিতরে লিফলেটগুলো ছিঁড়ে ফেলছে। সিট তো দিবে না, লিফলেটের লেখাগুলো তখন কাঁটা হয়ে বিদ্ধতো।
@ইকবাল হোসেন
মৃত্তিকা বিজ্ঞান

https://i2.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2017/10/IMG_20171019_234119.jpg?fit=720%2C431https://i1.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2017/10/IMG_20171019_234119.jpg?resize=150%2C150culiveক্যাম্পাসপলিটিক্সকয়েকদিন অাগে আড়াইটার ট্রেনে শহরে আসবো বলে ক্যাম্পাসে অপেক্ষা করছিলাম। দেখলাম কয়েকজন মিলে শাটলে, দোকানে লিফলেট লাগাচ্ছে।আহবান জানানো হয়েছে অর্ধেক পথ বসে, অর্ধেক পথ দাঁড়িয়ে যাওয়ার। কনসেপ্ট খারাপ না। সাধারনত বন্ধুদের সাথে যাওয়ার ক্ষেত্রে সিট কম পেলে এমন করি।কিন্তু লিফলেটের কথাগুলো নিজের বিবেককে আরো নাড়া দিলো। ক্যাম্পাস জীবনের গত...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University