‘হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি ‘ নামে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।যেটি দেশের ইতিহাসে প্রথম কোন একক নদী ভিত্তিক গবেষণা কেন্দ্র।’পিকেএসএফ'(পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন) নামের দুটি এনজিও এর সম্পূর্ণ আর্থিক সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয় বায়োলজিক্যাল অনুষদের ৩০১ নম্বর কক্ষে স্থায়ীভাবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে এটি।আগামীকাল রবিবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনিক  ভবনের কনফারেন্স হলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রা করবে এ গবেষণা কেন্দ্রটি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন চবি উপচার্য প্রফেসর ড.ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সাবেক মূখ্য সচিব ও ‘পিকেএসএফ’ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো.আব্দুল করিম।এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রধান মন্ত্রীর কার্যালয়ের মহাপরিচালক (প্রশাসন)ও প্রকল্প পরিচালক (এটুআই)কবির বিন আনোয়ার উপস্থিত থাকবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

জানা যায়,হালদা নিয়ে সকল ধরণের গবেষণা এখানে থাকবে।শুধু চবি নয়,দেশের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ও এখানে গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা ও নিবন্ধন করতে পারবে।এ গবেষণা কেন্দ্রে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি সহ একটি ল্যাব থাকবে।যেখানে পানির কোয়ালিটি ও অবস্থান সহ নদী গবেষণার সকল প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি থাকবে।এ গবেষণা কেন্দ্রে থাকবে একটি ছোট জাদুঘর।যেখানে ডলফিন সহ নদীর বড় বড় মাছগুলে সংরক্ষিত থাকবে।এছাড়া এ গবেষণা কেন্দ্রে একটি কনফারেন্স কক্ষ থাকবে।যেখানে হালদা নদী নিয়ে সকল গবেষণার একটি আখ্যা দেওয়া থাকবে।

চবি প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা নদী রক্ষা কমিটির সভাপতি ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া আজাদীকে বলেন,এটি বাংলাদেশের একক নদী নিয়ে প্রথম গবেষণা কেন্দ্র।নদীটি বাংলাদেশের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় বিগত অনেক সময়ে এ নদী নিয়ে আমরা সহ অনেক গবেষণা করেছি।এক জায়গায় না থাকার কারণে সব গুলো বিষয় বিক্ষিপ্ত ভাবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল।যাতে কোন কার্যকরী ফলাফল আসেনি।তাই এ গবেষণা কেন্দ্রটি একটি মডেল হয়ে উঠবে।একটি জায়গা থেকে থেকে যদি সবকিছু পাওয়া যায়,তাহলে শুধু হালদা নয় দেশের সকল নদী নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে সরকার ও গবেষকদের জন্য সহজ হবে।আমরা তো একসময় থাকবো না।তবে এ নদী গবেষণা যাতে থেমে না থাকে সে জন্যই এই গবেষণা কেন্দ্র স্থাপন করা’।

তিনি বলেন,অর্থ মন্ত্রনালয়ের অধীনস্থ সংস্থা ‘পিকেএসএফ’ ও লোকাল সংস্থা ‘আইডিয়ে’ এর সম্পূর্ণ অর্থায়নে এ গবেষণা কেন্দ্রটি প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।তারা আমাদেরকে তিনটি পেইজে এ ল্যাবে সহায়তা করবে।প্রথম বছর মেইনলি ইম্পোরিয়র এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ ইকুয়েপমেন্ট দেবে।পরবর্তী দু’বছর শুধুমাত্র ইকুয়েপমেন্ট দেবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা দেখি ব্যবসায়ী ও বিভিন্ন সংস্থা বিভিন্ন জায়গায় ফান্ড দেয়।কিন্তু এরকম গবেষণায় কেউ এগিয়ে আসে না।এ দুটি সংস্থা আমাদেরকে সম্মান করে এগিয়ে এসেছে।বিভিন্ন সংস্থা ও এ ধরণের ল্যাব তৈরিতে উৎসাহিত হবে বলে মনে করি। আর তাদের সহযোগিতা অন্যরকম এক উদাহরণ হয়ে থাকবে।আমি মনে করি- এ গবেষণা কেন্দ্রেটি হালদা নদীর জন্য একটি মাইলস্টোন হবে।

-আজাদী

https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2017/07/chittagong-University.jpg?fit=480%2C320https://i0.wp.com/culive24.com/wp-content/uploads/2017/07/chittagong-University.jpg?resize=150%2C150MSH Hridoyআন্তর্জাতিকএকাডেমিকএক্সক্লুসিভক্যাম্পাসব্লগমিডিয়ারিসার্সশিক্ষাস্টাডি'হালদা রিভার রিসার্চ ল্যাবরেটরি ' নামে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে।যেটি দেশের ইতিহাসে প্রথম কোন একক নদী ভিত্তিক গবেষণা কেন্দ্র।'পিকেএসএফ'(পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন) নামের দুটি এনজিও এর সম্পূর্ণ আর্থিক সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয় বায়োলজিক্যাল অনুষদের ৩০১ নম্বর কক্ষে স্থায়ীভাবে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে এটি।আগামীকাল রবিবার বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনিক  ভবনের কনফারেন্স হলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University