পহেলা বৈশাখ ও পান্তা সমাচার
পহেলা বৈশাখ ও পান্তা সমাচার

পহেলা বৈশাখ কোনো বিজাতীয় উৎসব নহে, তবে ইহা গ্রামবাংলার প্রতিটি দৈন্য পীড়িত হাস্যোজ্বল পরিবারের দৈনন্দিন প্রতিচ্ছবি যাহা কিনা অর্থ বৈভবের মাধ্যমে আধুনিক শ্রেনীর অর্থ প্রদর্শনের ভঙ্গিমা মাত্র, অর্থাভাবে পান্তা আহার আর অতি অর্থবৈভব বিশিষ্ট মানুষের অর্থ প্রাচুর্যের কারনে দিন বিশেষে অনায্য মূল্যে পান্তা আহারের প্রকাশ ভঙ্গীমায় পহেলা বৈশাখ সমাজের বৈষম্য প্রকাশ পায় মাত্র ৷ দৈনিক পান্তা আহার্য্য মানুষের বারমাসেই বৈশাখ থাকে, “তাহাদের পৌষ মাস আর সর্বনাস” বলিয়া কিছু নাই , আর দিন বিশেষে পান্তা আহার্য্য মানুষের মুখে যে পান্তাভাত অমৃতরূপ রুচে তাহারা পান্তার কতটুকু কদর্য করে তা ঠিক বোধগম্য হয় না ৷

কেননা সারা বছর এদের ভাত বাসি হইয়া পান্তা নাম ধারন করিয়া ঠিকই ডাস্টবিনে নিজের স্থান দখল করিয়া নেয় দিন বিশেষের পান্তার পার্থক্য এই যে, এক শ্রেনীর পান্তা চিরাচরিত নিয়মে তৈয়ার হয় যাহার চারি পাশে মাছি বিশেষের কড়া পাহাড়ায় পরিবেশিত হইয়া থাকে, কদাচিৎ মাছি শ্রেনীও ইহার কিছুটা নৈতিক ভাগ বসাইতে চায়, কিন্তু গৃহস্থ মহাশয় তাহা নিজের ব্যক্তিগত সম্পদ মনে করিয়া এবং মাছি বিশেষের নৈতিক অধিকার অনৈতিক মনে করিয়া তাড়াইয়া লইয়া যায় এবং গৃহস্থ তাহার উত্তম ব্যবহার করিয়া আত্নতুষ্টি লাভ করে, ৷

আরেক শ্রেনী ঘটা করিয়া গ্যাসের উনুনে তাৎক্ষনিক গরম ধোঁয়া উঠা ভাত তৈয়ার করিয়া তাহার পানি নিংড়াইয়া নতুন করিয়া পানি প্রবাহিত করিয়া আহার্য্যে প্রবৃত্ত হয়, মাছি বিশেষ এই শ্রেনীর পান্তায় কদাচিত দৃষ্টিপাত করিলেও নৈতিক কিবা অনৈতিক দাবী করিয়া ভাগ পাইবার লালসা পোষন করে না বরংচ তাহাদের ডাস্টবিনে তৈয়ার পান্তা ভাতই বেশী কদর্য বলিয়া মনে হয় ৷

 

রাজিব হাসান হিমেল

ইতিহাস = ২০১৪-১৫

culiveন্যাশনালব্লগমিডিয়াপহেলা বৈশাখ,পান্তা সমাচারপহেলা বৈশাখ ও পান্তা সমাচার পহেলা বৈশাখ কোনো বিজাতীয় উৎসব নহে, তবে ইহা গ্রামবাংলার প্রতিটি দৈন্য পীড়িত হাস্যোজ্বল পরিবারের দৈনন্দিন প্রতিচ্ছবি যাহা কিনা অর্থ বৈভবের মাধ্যমে আধুনিক শ্রেনীর অর্থ প্রদর্শনের ভঙ্গিমা মাত্র, অর্থাভাবে পান্তা আহার আর অতি অর্থবৈভব বিশিষ্ট মানুষের অর্থ প্রাচুর্যের কারনে দিন বিশেষে অনায্য মূল্যে পান্তা আহারের প্রকাশ...Think + and get inspired | Priority for Success and Positive Info of Chittagong University